বিসিএস লিখিত বাংলার প্রস্তুতি কৌশল !

আপনি যখন বাসে উঠেন তখন টিকিট সঙ্গে রাখেন, রেস্টুরেন্টে খেতে বসলে মেন্যু হাতে নেন। ঠিক তেমনি পরীক্ষায় ভাল প্রস্তুতির জন্য সিলেবাসটা আপনাকে হাতের মুঠোয় রাখতে হবে, পরম বন্ধু বানাতেই হবে। কারণ পিএসসি আপনাকে এই একটি জিনিসই দিয়েছে – সিলেবাস, আর এই সিলেবাসের আলোকেই সব কিছু হবে। এটাই প্রস্তুতির কম্পাস যা আপনাকে সর্বদা চলার পথে পথ দেখাবে। 

Analysis & Findings

প্রথমেই বাংলা সিলেবাসকে ৪ ভাগে ভাগ করুন:
১। বাংলা সাহিত্য = ৩০ নম্বর
২। বাংলা ব্যাকরণ = ৩০ নম্বর
৩। গ্রন্থ সমালোচনা = ১৫ নম্বর
৪। অবশিষ্ট = ১২৫ নম্বর ক. ভাব-সম্প্রসারণ
খ. সারমর্ম
গ. অনুবাদ
ঘ. কাল্পনিক সংলাপ
ঙ. পত্র লিখন
চ. রচনা.
এবার ভাবুনতো!

● কোন অংশটায় ছাক্কা নম্বর আছে? হ্যাঁ, সাহিত্য ও ব্যাকরণ।
● কোন অংশটা জোর দিয়ে পড়া উচিত? ১, ২, ৩ ।
হ্যাঁ, সাহিত্য, ব্যাকরণ ও গ্রন্থ সমালোচনা।
গ্রন্থ সমালোচনাও মোটামুটি ভাল করে পড়তে হবে কারণ না পড়লে এটা লেখা যাবে না।
● ৪ নং এর টপিকসগুলো (১২৫ নম্বর) আপনি মোটামুটি এমনিতেই লিখতে পারেন। জাস্ট কিছুটা চোখ বুলাতে হবে। অর্থাৎ লিখিতর বাংলা বিষয়ে মূল পড়াটা হলো ২০০ নম্বরের মধ্যে শুধু ৭৫ নম্বরের জন্য।


সিলেবাস বুঝে এবং বিগত সালের প্রশ্ন দেখে প্রশ্নের ধরন ও প্যাটার্ন বুঝে নিলে প্রস্তুতি নেওয়াটা খুব সহজ হয়ে যায়। অর্থাৎ কী পড়বেন, কোনটা আগে পড়বেন এবং কীভাবে পড়বেন সেটা বুঝে নিলে অনেক কিছুই সহজ হবে। 🙂
.
.
➊ বাংলা সাহিত্য:
.
● কী কী পড়বেন?
বিগত সালের প্রশ্ন বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে যে, বাংলা সাহিত্যের প্রাচীন ও মধ্যযুগ থেকে ২-৩ টি পর্যন্ত প্রশ্ন এসেছে। তাই চর্যাপদ, মঙ্গলকাব্য, শ্রীকৃষ্ণকীর্তন, চন্ডীদাস ও চন্ডীদাস সমস্যা, বাংলা সাহিত্যের যুগবিভাগ, মঙ্গলকাব্য, বৈষ্ণব পদাবলী, রোমান্টিক প্রণয়োপখ্যান, অনুবাদ গ্রন্থ, আরাকান রাজসভা, লোকসাহিত্য, ফোর্ট উইলিয়াম কলেজ ও পণ্ডিতবর্গ ইত্যাদি টপিকস অল্প অল্প করে চোখ বুলিয়ে নিন। এরপর মুসলিম সাহিত্য সমাজ, সাহিত্য পত্রিকা ও সাময়িকী, উপাধি ও ছদ্মনাম দেখুন। সর্বশেষে ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক সাহিত্যকর্ম এবং আধুনিক যুগের গুরুত্বপূর্ণ সাহিত্যিক ও তাদের সাহিত্যকর্ম পড়ে ফেলুন। পড়ার সময় লেখক বা গ্রন্থের নামের বানান ভাল করে খেয়াল রাখুন। 

● কিভাবে পড়বেন? কোথা থেকে পড়বেন?
বাংলা সাহিত্যের জন্য ‘প্রিলির বাংলা’ গাইড বইটি আগে দেখুন। এরপর অন্য বই ধরুন। কেন প্রিলির বাংলা বই? কারণ প্রিলির গাইড বইটি আপনার তামা তামা করা আছে। ইতোমধ্যে একাধিকবার পড়েছেন। আর ভাষা সহজ বলে মনেও থাকবে, সময়ও বাঁচবে। কতটুকু কমন বা কভার করবে? চর্যাপদ কে, কত সালে, কোথা থেকে আবিষ্কার করেন, বৈষ্ণব পদাবলির ৫ জন কবির নাম বা বঙ্কিম এর ত্রয়ী উপন্যাসমূহের নাম লিখুন – এসব বিগত সালের লিখিতর প্রশ্ন। এগুলো কি প্রিলির বইতে নেই! সব প্রশ্ন না হোক – প্রিলির সেই চিরচেনা বই লিখিতর অনেক অনেক প্রশ্নের উত্তরে উপকরণ হিসেবে সহায়ক হবে।


এরপর বিগত সালের প্রশ্ন দেখুন।
সর্বশেষে বিষয় বাংলা/জিজ্ঞাসা /দর্পন by সৌমিত্র শেখর/লালনীল দীপাবলী by হুমায়ুন আজাদ /শীকর বাংলা সাহিত্য by মোহসিনা নাজিলা – যেটা আছে, যতটুকু দরকার, টাইম বাজেটের মধ্যে শুধু চোখ বুলিয়ে নিন। 🙂
.
শেষ কথা, প্রিলির প্রস্তুতি দিয়েই প্রশ্নভেদে সাহিত্যের ১০ টি প্রশ্নের ৩-৪ টি উত্তর করা যায়। তাই আমাদের লক্ষ হবে এই অংশ দ্রুত চোখ বুলিয়ে যাওয়া আর আন্তবিশ্বাসটা ঠিক রাখা।

➋ বাংলা ব্যাকরণ
সিলেবাসে উল্লেখকৃত …..
“শব্দ গঠন, বানান/বানানের নিয়ম, বাক্য শুদ্ধি বা প্রয়োগ-অপপ্রয়োগ, প্রবাদ প্রবচন বাক্য গঠন।”
.
প্রথমেই বানান, বানানের নিয়ম ও বাক্য শুদ্ধি পড়ে ফেলা উচিত। কারণ এটা পরীক্ষার খাতায় শুদ্বভাবে লিখতে সহায়তা করবে। ১০ নম্বরের এই অংশটি রিপিট হয়। তাই বানানের নিয়ম জানা থাকলে মোটামুটি বিগত সালের প্রশ্ন সলভ করে কাজ চালানো যাবে।
.
অন্যান্য অংশের জন্য মাধ্যমিক বাংলা ভাষার ব্যাকরণ, যেকোন ভাষা-শিক্ষা বা ব্যাকরণ বই ও লিখিতর গাইড বইটি দেখুন। বাংলা ব্যাকরণের উপর স্বল্প সময়ে প্রস্তুতি নেওয়ার উপযোগী আমার একটি নোট ছিল – সেটাও দেখতে পারেন। তবে মূল বইয়ের কোন বিকল্প নেই!


➌ গ্রন্থ সমালোচনা:
এতে ১৫ নম্বর কিন্তু অনেক পড়া। কমনের কোন গ্যারান্টি নেই। তাই প্রথমেই সাজেশন অনুযায়ী ২ ভাগে ভাগ করুন। কোনগুলো আগে পড়বেন, জোর দিয়ে পড়বেন সেগুলো চিহ্নিত করুন। এই টপিকস এর জন্য মুক্তিযুদ্ধ ও ভাষা আন্দোলনভিত্তিক সাহিত্যকর্ম খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আর বই থেকে গ্রন্থ সমালোচনা অংশের বড় বড় আলোচনা শর্টকার্ট করতে পড়ার সময় প্রতিটার ১০-১২ টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বা বাক্য দাগিয়ে বা মার্ক করে মনে রাখুন। এতে পরীক্ষার পূর্বে রিভিশন দিতে খুব সহায়ক হবে।


➍ অবশিষ্টাংশ :
.
● সারমর্ম = লেখার নিয়ম ও কৌশল (পরীক্ষার ঠিক পূর্বে, যেন রিভিশন করতে না হয়)
● ভাব-সম্প্রসারণ = লেখার নিয়ম ও কৌশল (পরীক্ষার ঠিক পূর্বে)
● পত্র লিখন = লেখার নিয়ম ও কৌশল (পরীক্ষার ঠিক পূর্বে)
● কাল্পনিক সংলাপ = ভাল লিখতে বই পড়ার অভ্যাস, নাটক ও মুভি দেখা, বাস্তব অভিজ্ঞতা ও imagination বা কাল্পনিক শক্তির উপর অনেকাংশে নির্ভর করবে।
● অনুবাদ = এতে develop করা সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। তাই শেষ সময়ে না দেখাই শ্রেয়।

● বাংলা রচনা
সহপাঠী বন্ধুবরেষু,
আমি মনে করি, বাংলা রচনা কিছুটা পরেই পড়া উচিত বা যদি সময় কম থাকে তবে বাংলা রচনা অল্প করে পড়লেও চলবে! কেন? বিগত সালের প্রশ্নাবলী বিশ্লষণে দেখেছি, প্রায় প্রতিবারই বাংলা রচনার জন্য এমন দু-একটি টপিকস থাকে যা বাংলাদেশ বিষয়াবলির ১৬ টপিকসের কোন না কোনটির সাথে ম্যাচ করে যায়। মিলিয়ে দেখুন! অর্থাৎ বাংলাদেশ বিষয়াবলি ভাল করে পড়লে কমন এসেছে। সেখানকার ডাটাগুলো রচনা লিখতে কাজে দিয়েছে। 🙂 উপরন্তু SSC ও HSC পাড় করেছেন, বাস্তব জ্ঞানও বিস্তৃত হয়েছে – পারবেন না মানে অবশ্যই লিখতে পারবেন। quality ও quantity বজায় রেখে পরীক্ষার হলে অসি চালানোর মত জাস্ট কলমটা চালাবেন! 

Key Point


● পড়ার সময় লেখক বা গ্রন্থের নামের বানান খেয়াল রাখুন। লেখক বা গ্রন্থের নামের বানান ভুল হলে সাহিত্যের প্রশ্নোত্তরে শূন্য নম্বর দেয়া হয়।
সূত্র: সৌমিত্র শেখর স্যার, বিষয় বাংলা।

● পরীক্ষার হলে বাংলা ব্যাকরণ উত্তর করতে বেশি সময় লাগে না। তাই সেখানকার সাশ্রয়টুকু সময় সাহিত্য অংশে ভাল নম্বরের জন্য ব্যবহার করুন। তবে ২ নম্বরের জন্য খুব বেশি লেখার দরকার নেই। just প্রাসঙ্গিক ও ইনফোরমেটিভ রাখুন। তবেই ছাক্কা ৬০ নম্বরে ভাল নম্বর আসবে।
.

● উত্তর to the point, স্পষ্ট ও সঠিভাবে লেখার চেষ্টা করুন। কারণ ভুল উত্তরের জন্য কোন সান্ত্বনা নম্বর দেয়া হয় না।

● যেহুতু বিষয়টি বাংলা, তাই লেখার সময় বানান সতর্কতা অবলম্বন করুন। এমনিতেই বানান ও বাক্যশুদ্ধিতে ১০ নম্বর বরাদ্দ আছে।

Key Focus

১। বাংলা সাহিত্য = ৩০ নম্বর (ছাক্কা নম্বর) ✔
২। বাংলা ব্যাকরণ = ৩০ নম্বর (ছাক্কা নম্বর) ✔
৩। গ্রন্থ সমালোচনা = ১৫ নম্বর (না জানলে লেখা যাবে না) ✔
৪। অবশিষ্ট = ১২৫ নম্বর ✕ সারমর্ম, ভাব-সম্প্রসারণ, পত্র লিখন, রচনা, কাল্পনিক সংলাপ (অবশিষ্ট = ১২৫ নম্বর) এগুলো আপনি শুধু লেখার নিয়ম ও কৌশল পড়ে গেলেও লিখতে পারবেন। তাই হাতে সময় কম থাকলে অল্প করে পড়লেই চলবে। সুতরাং ২০০ নম্বরের লিখিত বাংলার মূল পড়াটা হলো শুধু ৭৫ নম্বরের জন্য। :

লেখকঃ
৩৫ তম বিসিএস সাধারন শিক্ষা ক্যাডারে সুপারিশকৃত
বর্তমানে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে
আইন ও বিচার বিভাগের ১ম শ্রেণির পদে কর্মরত

বিশেষ দ্রষ্টব্য: এই ওয়েবসাইটের কোনো কনটেন্ট অন্য কোন ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা দণ্ডনীয় অপরাধ। ইতিমধ্যে থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। কেউ এই ওয়েবসাইটের কনটেন্ট কপি করে নিজের নামে চালিয়ে দিলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on telegram
Telegram
Share on email
Email
Share on twitter
Twitter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Posts

Latest Jobs

সকল কবি সাহিত্যিক লেখকের সাহিত্যকর্ম মনে রাখার উপায় !

সকল কবি সাহিত্যিক লেখকের সাহিত্যকর্ম মনে রাখার উপায় ! ইসমাইল হোসেন সিরাজীর উপন্যাস মনে রাখার সহজ উপায়: রানুর ফিতা ১। রা – রায় নন্দিনী ২।

Read More »

সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে ৭১ জনের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত। সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে মোট ৯ টি পদে ৭১ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আবেদন শুরু-২৯ ডিসেম্বর

Read More »

প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে ৩৮ জনের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত। আবেদন শুরু-১৫ ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০ টা থেকে। আবেদন শেষ- ৪ জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫ টা। আবেদন করতে

Read More »

শক্তির উৎস

শক্তির উৎস শক্তির প্রধান উৎস (prime sources of energy) সূর্যই প্রায় সকল শক্তির উৎস । এছাড়াও পরমাণুর অভ্যন্তরে নিউক্লিয়াসের নিউক্লিয় শক্তি ও  পৃথিবীর অভ্যন্তরে অবস্থিত উত্তপ্ত গলিত

Read More »

বিশ্বসভ্যতা (A 2 Z)। ২০০ MCQ

বিশ্বসভ্যতা পৃথিবী এ পর্যন্ত পাড়ি দিয়েছে চারটি বরফ যুগ ও চারটি আন্তঃবরফ যুগ। প্রতি যুগেই উষ্ণ অঞ্চলে গিয়ে টিকে থাকা প্রাণীদের দেহের আকৃতিতে কিছু পরিবর্তন

Read More »

সকল কবি সাহিত্যিক লেখকের সাহিত্যকর্ম মনে রাখার উপায় !

সকল কবি সাহিত্যিক লেখকের সাহিত্যকর্ম মনে রাখার উপায় ! ইসমাইল হোসেন সিরাজীর উপন্যাস মনে রাখার সহজ উপায়: রানুর ফিতা ১। রা – রায় নন্দিনী ২।

Read More »

সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে ৭১ জনের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত। সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে মোট ৯ টি পদে ৭১ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আবেদন শুরু-২৯ ডিসেম্বর

Read More »

প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে ৩৮ জনের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত। আবেদন শুরু-১৫ ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০ টা থেকে। আবেদন শেষ- ৪ জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫ টা। আবেদন করতে

Read More »

শক্তির উৎস

শক্তির উৎস শক্তির প্রধান উৎস (prime sources of energy) সূর্যই প্রায় সকল শক্তির উৎস । এছাড়াও পরমাণুর অভ্যন্তরে নিউক্লিয়াসের নিউক্লিয় শক্তি ও  পৃথিবীর অভ্যন্তরে অবস্থিত উত্তপ্ত গলিত

Read More »

বিশ্বসভ্যতা (A 2 Z)। ২০০ MCQ

বিশ্বসভ্যতা পৃথিবী এ পর্যন্ত পাড়ি দিয়েছে চারটি বরফ যুগ ও চারটি আন্তঃবরফ যুগ। প্রতি যুগেই উষ্ণ অঞ্চলে গিয়ে টিকে থাকা প্রাণীদের দেহের আকৃতিতে কিছু পরিবর্তন

Read More »