ব্যাপন, অভিস্রবণ ও প্রস্বেদন

উদ্ভিদের মূলের সাহায্যে মাটি থেকে পানি ও পানিতে দ্রবীভূত খনিজ লবণ শোষণ করে এবং পানি ও রস কাাণ্ডের ভিতর দিয়ে পাতায় পৌঁছায়। আবার দেহে শোষিত পানি বাষ্পাকারে দেহ থেকে বের করে দেয়। উদ্ভিদ যে প্রক্রিয়ায় কার্বন ডাই অক্সাইড গ্রহণ করে এবং অক্সিজেন ত্যাগ করে দেহে পানি ও পানিতে দ্রবীভূত খনিজ লবণ শোষণ করে এবং দেহের নানা অঙ্গে পরিবহন করে দেহ থেকে পানি বাষ্পাকারে বের করে দেয় সেই সব প্রক্রিয়া ব্যাপন- অভিস্রবণ – পরিবহন ও প্রস্বেদনের মাধ্যমে ঘটে।

আজকে আমরা অষ্টম শ্রেণীর বিজ্ঞান বইয়ের ৩য় অধায়ের ব্যাপন- অভিস্রবণ ও প্রস্বেদন এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ ও বিগত চাকরির পরীক্ষায় আসা প্রশ্নগুলো দেখবো।

১। নিচের কোনটি অভিস্রবণ প্রক্রিয়ার সাথে সম্পর্কিত?

– জাইলেম টিস্যু

২। পাতার আর্দ্রতা বজায় রাখে কোনটি?

– প্রস্বেদন

৩। পানিতে ডুবানো ফুলে যাওয়া কিসমিস মধুতে রাখলে কী ঘটে?

– অভিস্রবণ

৪। কোনটি ভেদ্য পর্দা?

– কোষপ্রাচীর

৫। কলয়েডধর্মী পদার্থ কোনটি?

– জিলেটিন

৬। বেলি ফুলের গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে কোন প্রক্রিয়ায়?

– ব্যাপন

৭। পেপারোমিয়া কীসের নাম?

– গাছের

৮। কোন পর্দা দিয়ে দ্রব ও দ্রাবক উভয়েই চলাচল করতে পারে?

– কোষপ্রাচীর

৯। শাপলা ফুল ফুটতে কোন প্রক্রিয়া সাহায্য করে?

– অভিস্রবণ

১০। উদ্ভিদ দেহে শোষিত পানি বাষ্পাকারে প্রস্বেদনের মাধ্যমে দেহ থেকে কোন প্রক্রিয়ায় বের করে দেয়?

– ব্যাপন

১১। নিচের কোনটি আয়ন হিসেবে শোষিত হয়?

– খনিজ লবণ

১২। নিচের কোনটি অভেদ্য পর্দা?

– কিউটিনযুক্ত কোষপ্রাচীর

১৩। পাতায় তৈরি খাদ্য উদ্ভিদের সারা দেহে ছড়িয়ে পড়া নিচের কোনটির সাথে সম্পর্কিত?

– পরিবহন

১৪। উদ্ভিদের দেহ অভ্যন্তর থেকে পাতার মাধ্যমে পানি নির্গমন প্রক্রিয়াকে কী বলে?

– প্রস্বেদন

১৫। কোনটি অভেদ্য পর্দা?

– পলিথিন

১৬। কোনটি উদ্ভিদের জন্য একটি ‘ঘবপবংংধৎু বারষ’?

– প্রস্বেদন

১৭। প্রস্বেদন প্রধানত কোনটির মাধ্যমে হয়?

– পত্ররন্ধ্র

১৮। মূলত উদ্ভিদের কান্ড ও পাতাকে সতেজ ও সোজা রাখতে সাহায্য করে কোন প্রক্রিয়াটি?

– অভিস্রবণ

১৯। কোনটি অর্ধভেদ্য পর্দা?

– কোষপর্দা

২০। অর্ধভেদ্য নয় কোনটি?

– কোষপ্রাচীর

২১। মূলরোমের মাধ্যমে কোনটি প্রবেশ করে?

– 

২২। ডিমের খোসার ভেতরের পর্দার মধ্য দিয়ে কোনটি চলাচল করতে পারে?

-দ্রাবক

২৩। কোনটি উদ্ভিদের একটি বিশেষ শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া?

-বাষ্পমোচন

২৪। জীবের বিভিন্নরকম শারীরবৃত্তীয় কাজ কোন প্রক্রিয়ায় ঘটে?

– ব্যাপন

২৫। মাছের পটকা কোন ধরনের পর্দা?

– অর্ধভেদ্য

– উদ্ভিদ কোন প্রক্রিয়ায় কার্বন ডাই অক্সাইড গ্রহণ করে?

খ) ব্যাপন

২৭। অভিস্রবনকে ব্যাপন ও বলা যায়, কারণ

– ঘনত্ব সমান না হওয়া পর্যন্ত চলতে থাকে

– মাধ্যমের প্রকৃতির উপর নির্ভর করে না

২৮। প্রস্বেদন হতে পারে-

– পাতার কিউটিকলের মাধ্যমে

– লেন্টিসেলের মাধ্যমে

২৯। উদ্ভিদ সালোকসংশ্লেষণ প্রক্রিয়ায়-

– কার্বন ডাই-অক্সাইড গ্রহণ করে

– অক্সিজেন ত্যাগ করে

৩০। উদ্ভিদের পরিবহন কলাগুচ্ছ হলো-

– জাইলেম

– ফ্লোয়েম

৩১। বিভিন্ন প্রয়োজনীয় লবণ উদ্ভিদেহে কী অবস্থায় জীবকোষে প্রবেশ করে?

– দ্রবীভূত অবস্থায়

৩২। উদ্ভিদের মূলের বাইরের আবরণ থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত সব কোষের কোষ রসের-

– ঘনত্ব সমান নয়

৩৩। প্রস্বেদন প্রক্রিয়া সম্পাদনের প্রধান অঞ্চল কোনটি?

– পত্ররন্ধ্র

৩৪। প্রস্বেদন বা বাষ্পমোচন প্রক্রিয়া প্রধানত কয় প্রকার?

– ৩ প্রকার

৩৫। পাতার পত্ররন্ধ্র নিয়ন্ত্রণ করে কোনটি?

– রক্ষী কোষ

৩৬। ব্যাপন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে-

– উদ্ভিদে সালোকসংশ্লেষণ ঘটে

– প্রাণিদেহে শ্বসন ঘটে

– উদ্ভিদদেহে শোষিত পানি বাষ্পাকারে স্ফীতি হয়

৩৭। জীবকোষে শ্বসনের সময়-

– গ্লুকোজ জারণ হয়

– অক্সিজেন ব্যবহৃত হয়

৩৮। নিচের কোনটিকে   বলা হয়?

– প্রস্বেদন

৩৯। পদার্থের অণুসমূহের বেশি ঘনত্বের স্থান থেকে কম ঘনত্বের দিকে ছড়িয়ে পড়াকে কী বলে?

– ব্যাপন

৪০। অভিস্রবণ শুধুমাত্র কোন পদার্থের ক্ষেত্রে ঘটে?

– তরল

৪১। কোনটি অভিস্রবণের সময় দুটি তরলকে পৃথক করে রাখে?

– অর্ধভেদ্য পর্দা

৪২। অধিকাংশ কলয়েডধর্মী পদার্থ কীরূপ?

– পানিগ্রাহী

৪৩। উদ্ভিদের শোষিত পানির-

– কিছু অংশ বিপাকীয় কাজে লাগে

– অধিকাংশ অংশ বাষ্পাকারে বের হয়ে যায়

৪৪। প্রস্বেদনের প্রকারভেদের মধ্যে রয়েছে-

– পত্ররন্ধ্রীয় প্রস্বেদন

– লেন্টিকুলার প্রস্বেদন

৪৫। নিচের কোনটি দ্রাবক?

– পানি

৪৬। নিচের কোনটি কলয়েডধর্শী?

– সেলুলোজ

৪৭। উদ্ভিদের মূলরোম দ্বারা শোষিত পানি পাতায় পরিবাহিত হয় কোন টিস্যুর মাধ্যমে?

– জাইলেম

৪৮। উদ্ভিদ কোন প্রক্রিয়ায় মূলরোমের সাহায্যে মাটি হইতে পানি শোষণ করে?

– অভিস্রবণ

৪৯। ব্যাপন প্রক্রিয়ায়-

– কোষের অক্সিজেন প্রবেশ করে

– প্রাণী শ্বসনকার্য পরিচালনা করে

৫০। অভিস্রবণ প্রক্রিয়া-

– অর্ধভেদ্য পর্দার প্রয়োজন

– দ্রাবক কম ঘনত্ব থেকে বেশি ঘনত্বের দিকে ধাবিত হয়

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on telegram
Telegram
Share on email
Email
Share on twitter
Twitter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Posts

Latest Jobs

সকল কবি সাহিত্যিক লেখকের সাহিত্যকর্ম মনে রাখার উপায় !

সকল কবি সাহিত্যিক লেখকের সাহিত্যকর্ম মনে রাখার উপায় ! ইসমাইল হোসেন সিরাজীর উপন্যাস মনে রাখার সহজ উপায়: রানুর ফিতা ১। রা – রায় নন্দিনী ২।

Read More »

সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে ৭১ জনের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত। সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে মোট ৯ টি পদে ৭১ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আবেদন শুরু-২৯ ডিসেম্বর

Read More »

প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে ৩৮ জনের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত। আবেদন শুরু-১৫ ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০ টা থেকে। আবেদন শেষ- ৪ জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫ টা। আবেদন করতে

Read More »

শক্তির উৎস

শক্তির উৎস শক্তির প্রধান উৎস (prime sources of energy) সূর্যই প্রায় সকল শক্তির উৎস । এছাড়াও পরমাণুর অভ্যন্তরে নিউক্লিয়াসের নিউক্লিয় শক্তি ও  পৃথিবীর অভ্যন্তরে অবস্থিত উত্তপ্ত গলিত

Read More »

বিশ্বসভ্যতা (A 2 Z)। ২০০ MCQ

বিশ্বসভ্যতা পৃথিবী এ পর্যন্ত পাড়ি দিয়েছে চারটি বরফ যুগ ও চারটি আন্তঃবরফ যুগ। প্রতি যুগেই উষ্ণ অঞ্চলে গিয়ে টিকে থাকা প্রাণীদের দেহের আকৃতিতে কিছু পরিবর্তন

Read More »

সকল কবি সাহিত্যিক লেখকের সাহিত্যকর্ম মনে রাখার উপায় !

সকল কবি সাহিত্যিক লেখকের সাহিত্যকর্ম মনে রাখার উপায় ! ইসমাইল হোসেন সিরাজীর উপন্যাস মনে রাখার সহজ উপায়: রানুর ফিতা ১। রা – রায় নন্দিনী ২।

Read More »

সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে ৭১ জনের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত। সিলেট কর কমিশনারের কার্যালয়ে মোট ৯ টি পদে ৭১ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আবেদন শুরু-২৯ ডিসেম্বর

Read More »

প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে ৩৮ জনের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত। আবেদন শুরু-১৫ ডিসেম্বর, ২০২০ সকাল ১০ টা থেকে। আবেদন শেষ- ৪ জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫ টা। আবেদন করতে

Read More »

শক্তির উৎস

শক্তির উৎস শক্তির প্রধান উৎস (prime sources of energy) সূর্যই প্রায় সকল শক্তির উৎস । এছাড়াও পরমাণুর অভ্যন্তরে নিউক্লিয়াসের নিউক্লিয় শক্তি ও  পৃথিবীর অভ্যন্তরে অবস্থিত উত্তপ্ত গলিত

Read More »

বিশ্বসভ্যতা (A 2 Z)। ২০০ MCQ

বিশ্বসভ্যতা পৃথিবী এ পর্যন্ত পাড়ি দিয়েছে চারটি বরফ যুগ ও চারটি আন্তঃবরফ যুগ। প্রতি যুগেই উষ্ণ অঞ্চলে গিয়ে টিকে থাকা প্রাণীদের দেহের আকৃতিতে কিছু পরিবর্তন

Read More »